ঢাকা বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

নেপালের বিপক্ষে পরাজয়ের দায় কার, খেলোয়ার না কোচের?

যেখানে মেয়েরা সফল সেখানে ছেলেরা ব্যর্থ, নেপালের কাছে ৩-১ গোলে হার বাংলাদেশের

ক্রীড়া ডেস্ক | প্রকাশিত: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৪:৪১; আপডেট: ৩০ নভেম্বর ২০২২ ১৭:১৮

নেপালের কাছে বাংলাদেশ পাত্তাই পেলোনা। অঞ্জন বিস্তার হ্যাটট্রিকে বিরতির আগেই তিন গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়ে হাভিয়ের কাবরেরার দল।

জামাল ভূঁইয়ার ফ্রি-কিক ক্রসবার কাঁপিয়ে ফেরার পর পথ হারাল বাংলাদেশ। প্রথমার্ধেই হজম করল তিন গোল। দ্বিতীয়ার্ধে কিছুটা ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিলেও শেষ পর্যন্ত হারের হতাশাই সঙ্গী হলো হাভিয়ের কাবরেরার দলের।

কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে স্বাগতিক নেপালের বিপক্ষে ৩-১ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ।

নেপালের হয়ে হ্যাটট্রিক উপহার দেন অঞ্জন বিস্তা। বাংলাদেশের ব্যবধান কমানো একমাত্র গোলটি করেন সাজ্জাদ হোসেন।

এই মাঠে কদিন আগে নেপালকে উড়িয়ে মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা উৎসব করে বাংলাদেশ। জামাল-মতিন-রাকিবদের কথায় ঘুরেফিরে আসছিল মেয়েদের সাফল্যের পুনরাবৃত্তির আশাবাদ। আগের প্রীতি ম্যাচে কম্বোডিয়ার মাঠে ১-০ গোলের জয়ের আত্মবিশ্বাসও সঙ্গী ছিল দলের।

শুরুর দিকে নেপালের বিপক্ষে সমানে সমান লড়ছিলও বাংলাদেশ। ষোড়শ মিনিটে জামালে ফ্রি-কিক ক্রসবারে লেগে প্রতিহত হলে এগিয়ে যাওয়ার সেরা সুযোগটি নষ্ট হয় দলের। এরপর একটু একটু করে ম্যাচ থেকে ছিটকে যেতে থাকে তারা। দুই মিনিট পর এগিয়ে যায় নেপাল। ডান দিক থেকে বিমল ঘারতি মাগারের ফ্রি-কিকে জটলার ভেতর থেকে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন অঞ্জন।

সমতায় ফিরতে মরিয়া বাংলাদেশ ২৬তম মিনিটে সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু রাকিব হোসেনের নিচু কোনাকুনি শট আটকান অধিনায়ক ও গোলরক্ষক কিরণ কুমার লিম্বু।

পরের মিনিটের গোলে ম্যাচে চালকের আসনে বসে নেপাল। স্বাগতিকদের প্রথম প্রচেষ্টা গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকো প্রতিহত করলেও অঞ্জনের ফিরতি শট আটকাতে পারেননি তিনি।

৩৮তম মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন অঞ্জন। সতীর্থের ক্রসে হেডে জিকোকে পরাস্ত করেন ২৪ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। প্রতিটি গোলেই ফুটে ওঠে বাংলাদেশের এলোমেলো রক্ষণের প্রতিচ্ছবি।

দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়ানোর উপলক্ষ পায় বাংলাদেশ। ৫৭তম মিনিটে ডান দিক থেকে রাকিবের ক্রস এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে কিছুটা উপরে উঠে যাওয়ার পর ডাইভিং হেডে লক্ষ্যভেদ করেন সাজ্জাদ।

৬৬তম মিনিটে সাজ্জাদের ক্রসে মোহাম্মদ ইব্রাহিমের হেড পোস্টের অল্প একটু বাইরে দিয়ে যায়। একটু পর রাকিবের ক্রসে সাজ্জাদের হেডের পরিণতিও একই। ৭৮তম মিনিটে রাকিবের জোরাল শট বাইরের জাল কাঁপায়।

জয়ের ঘ্রাণ পেতে থাকা নেপাল শেষ দিকে ব্যবধান বাড়নোর চেয়ে ব্যবধান ধরে রাখার দিকেই ছিল মনোযোগী। তাতে বাংলাদেশের ঘুরে দাঁড়ানোর পথটা হয়ে যায় আরও কঠিন।

কাঠমান্ডুতে ২০২১ সালে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে নেপালের কাছে ২-১ গোলের হেরেছিল বাংলাদেশ।

একই বছর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে মালদ্বীপের মালেতে ১-১ ড্র করে ছিটকে গিয়েছিল বাংলাদেশ। এবার ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসার প্রত্যয় ছিল জামাল-মতিনদের কণ্ঠে। কিন্তু লক্ষ্য পূরণে উজ্জীবিত পারফরম্যান্স দশরথের আঙিনায় মেলে ধরতে পারেনি দল।

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top