ঢাকা বৃহঃস্পতিবার, ৭ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

বোলাদের কারণেই আমরা এই জয় পেয়েছি: মুমিনুল

এম. এ রনী | প্রকাশিত: ৫ জানুয়ারী ২০২২ ১১:০৭; আপডেট: ৭ জুলাই ২০২২ ০১:১২

অনন্য এক ইতিহাস গড়া জয় দিয়ে নতুন বছরটি শুরু করলো টাইগাররা। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের সদ্য চ্যাম্পিয়ন নিউজিল্যান্ডকে যেন টেনে মাটিতে নামিয়ে আনলো টাইগাররা। যেখানে এশিয়ার অনেক বড় দলই খাবি খেতে থাকে তাদের বোলারদের কাছে, সেখানে টাইগাররা বুক উচিয়ে, চোখে চোখ রাঙিয়ে জয় নিউজিল্যান্ডকে সম্পূর্ণ ভাবে পরাস্ত করলো।

 

 

আর এই জয় যেন খুবই দরকার ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য। সম্প্রতি বাংলাদেশের ক্রিকেট যেন এক সমালোচনায় মুখর সময় পার করছে। টি২০ বিশ্বকাপের পর টাইগারদের বাজে সময় যেন ছাড়ছেই না। তার সাথে যোগ হয়ে ক্রিকেট বোর্ডের একের পর নতুন বিতর্ক। তার মাঝেই এই নিয়ে আসলো এক নতুন স্নিগ্ধ সুভাস।

 

অধরা জয় ধরা দিল। তাও আবার টেস্ট চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে তাদেরই মাটিতে। এ এক অসাধারণ অনুভূতি, অসামান্য প্রাপ্তি, অবর্ণনীয় আত্মতৃপ্তি। ১২ হাজার কিলোমিটার দূরে মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে পাওয়া জয়ে কেটে গেল বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক আঁধার।

 

নিউজিল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে গেল দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে। 

৫ উইকেটে ১৪৭ রান নিয়ে শেষ দিন শুরু করা কিউইদের ইনিংস শেষ করতে এক ঘণ্টাও লাগেনি বাংলাদেশের। এরপর ৪০ রানের ছোট্ট লক্ষ্য তাড়ায় দুটি উইকেট হারাতে হয় বটে, জয়ের মাহাত্ম্য তাতে কমেনি একটুও।

এমন দুর্দান্ত ও ঐতিহাসিক জয়ের সমস্ত কৃতিত্ব দলের সব সদস্যকেই দিলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক।

টাইগারদের সাদা জার্সির দলনেতা জয়ের প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, ‘এটা একটা টিম ওয়ার্ক ছিল। সবাই এই ম্যাচ জিততে আগ্রহী ছিল। আমাদের সব ডিপার্টম্যান্ট ভালো করেছে। সবাই যার যার অবস্থানে তাদের সেরাটা দিয়েছেন। 

সবাইকে কৃতিত্ব দিলেও বোলারদের প্রশংসা করতে ভুললেন না মুমিনুল।

বললেন, ‘আসলে আমাদের বোলারদের কারণে আমরা জিতেছি, তারা সঠিক জায়গায় বোলিং করেছে এবং সেই প্রক্রিয়া অনুসরণ করার চেষ্টা করেছে। আমরা জানি নিউজিল্যান্ডে যখন সূর্য অস্ত যায়, উইকেট স্পিন হয় এবং আমরা এই জিনিসগুলো কাজে লাগানোর চেষ্টা করি। এবাদত তো অবিশ্বাস্য ছিল। অসামান্য প্রচেষ্টা ছিল তার। এই জয়ে দলের সবার অবদান ছিল, বোলারদের সাথে যদি ব্যাটসম্যানরা যদি ভালো না করতো তাহলে জয় সম্ভব ছিল না।

এখানে টেস্ট ম্যাচে আমরা শেষ কয়েকবার ভালো খেলতে পারিনি। তাই টেস্ট ম্যাচে আমাদের উত্তরাধিকারকে পরবর্তী স্তরে নিয়ে যাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আজ আমি এটা ভুলে যেতে চাই এবং আমাদের ক্রাইস্টচার্চ ম্যাচের জন্যও অপেক্ষা করতে হবে।’

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top