ঢাকা রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

বাংলাদেশে করতে পারবেন এএফসি প্রো কোর্স

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০২১ ১০:০৯; আপডেট: ২৪ এপ্রিল ২০২১ ১০:১১

 

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কোনো এএফসি প্রো কোচ নেই। বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষ কোচ সাইফুল বারী টিটু ২০১৪ সালে এএফসি প্রো কোর্সটি শুরু করেও এখন পর্যন্ত সমাপ্ত করতে পারেন নি। বাংলাদেশের আরেকজন অন্যতম মারুফুল হক তার উয়েফা এ লাইসেন্স থাকলেও নেই এএফসি প্রো সনদ। এই জন্য তাদের আক্ষেপও কম ছিলনা। এবার সেই আক্ষেপ থেকে মুক্তি পেতে যাচ্ছে তারা। তারকা এই শীর্ষ কোচদ্বয় সহকারে আরও কয়েকজন এ লাইসেন্সধারী কোচ বাংলাদেশেই এএফসি প্রো লাইসেন্স করা সুযোগ করে দিচ্ছে বাফুফে।

 

সম্প্রতি সময়ে বাফুফের নিজস্ব উদ্যোগে বাংলাদেশের ফুটবল প্রশিক্ষকদের জন্য বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন। আর ফুটবল উন্নয়ের অন্যতম দুটি মাধ্যম হলো কোচিং এডুকেশন ও গ্রাসরুট। বাফুফের অবশেষে এই দুই দিকে নজর দিয়েছে। বাফুফেতে সাম্প্রতিক সময়ে অনেকগুলো কোচিং কোর্স সম্পন্ন হয়েছে। সার্টিফিকেটধারী কোচের সংখ্যা অনেক বাড়লেও কার্যত এদের জ্ঞান নিয়ে কিছুটা প্রশ্ন রয়েছে। 

 

তারপও বাফুফের অধিনে কোচিং এডুকেশন ধারাবাহিক ভাবেই আয়োজন করেছে। আগামী জুন থেকে বাফুফের কোচিং এডুকেশন বিভাগ এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ হাতে নিচ্ছে,  প্রথমবারের মতো এএফসি ‘প্রো’ লাইসেন্স কোচিং কোর্স বাংলাদেশেই হবে। যা কিনা এশিয়ার ফুটবলে সর্বোচ্চ কোচিং সনদ। 

 

দেশের বাহিরে থেকে এএফসি প্রো করা সম্ভব কিন্তু যা খুবই ব্যবহুল। কিন্তু এবার সেই দিক থেকে বাংলাদেশের কোচেরা নিস্তার পাবে। বাফুফের মাধ্যমে ঢাকাতে অনুষ্ঠিতব্য কোর্সের জন্য ফি নির্ধারন করা হয়েছে। বাংলাদেশিদের জন্য ৫ হাজার এবং বিদেশিদের জন্য ৭ হাজার মার্কিন ডলার।

 

ছয়টি মডিউলে হবে প্রো কোর্স৷ প্রায় ২ বছর ব্যাপ্তি। প্রথম মডিউল জুনের ২৮ থেকে জুলাইয়ের ৪ পর্যন্ত। বাংলাদেশে এএফসি এ লাইসেন্সধারী কোচ রয়েছেন ৪৪ জন। এর মধ্যে আবেদন করেছেন প্রায় চল্লিশ শতাংশ। কোর্সে আবেদনকৃত অনেকেই প্রিমিয়ার লিগে কোচিংয়ের সাথে যুক্ত। 

 

বাংলাদেশে এই কোর্স করতে আসছেন বিদেশি কোচরাও, ‘মালদ্বীপ, ভুটান, ছাড়াও আফ্রিকা, ইউরোপের অনেকে আবেদন করেছে। আমরা অনেক আবেদন পেয়েছি। সবাইকে সুযোগ দেওয়া সম্ভব না। আমার ব্যক্তিগত অভিমত বাংলাদেশি কোচ থাকবে ৭০-৭৫ শতাংশ। দক্ষিণ এশিয়ার ১৫ শতাংশ বাকি ১০ শতাংশ অন্য মহাদেশের। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে টেকনিক্যাল কমিটির সভায়।’ বলেন পল স্মলি।

 

বাফুফের টেকনিক্যাল কমিটি এই সপ্তাহের মধ্যে সভা করে অংশগ্রহণকারীদের তালিকা চূড়ান্ত করবে জানিয়েছেন। বাংলাদেশের কোচ এবং বিদেশেীদের নিয়ে সংখ্যাটি ৩০ মধ্যেই থাকবে। ইউরোপিয়ান ও আফ্রিকান কোচদের এএফসি প্রো করার কারণ সম্পর্কে পলের অভিমত, ‘তাদের অনেকের উয়েফা লাইসেন্স থাকলেও এশিয়ায় কোচিংয়ের বড় ক্ষেত্র। এশিয়াতে সামনে এএফসি কাপ, চ্যাম্পিয়নস লিগ ও জাতীয় দলে কোচিং করাতে প্রো সনদ লাগবে। এজন্য হয়তো তারা এই সনদে আগ্রহী।’ 

 

এই ব্যাপারে পল স্মলি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বাফুফে ধারাবাহিকভাবে কোচিং কোর্স আয়োজন করে আসছে। আর এএফসি প্রো কোর্সটি এএফসি কোচিং এডুকেশন স্কিমের মধ্যে রয়েছে। আর এইজন্য বাফুফেকে প্রো আয়োজনের অনুমতি দিয়েছে। কোর্সে বিভিন্ন টপিকস থাকবে। প্রতি টপিকসেই এএফসির থেকে সেরা ইন্সট্রাক্টররাই থাকবে।’ 

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top