ঢাকা বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮

ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব অনুমোদনের পর ৫০ শতাংশ আসনে যাত্রী বহন

নিজস্ব প্রতিবেদক: | প্রকাশিত: ২৯ মার্চ ২০২১ ১৯:৩৮; আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০২১ ০০:৩৬

দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ১৮ দফা নির্দেশনা জারি করেছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। নির্দেশনা অনুযায়ী গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি ধারণ ক্ষমতার ৫০ ভাগের বেশি যাত্রী পরিবহন করা যাবে না। এছাড়া সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলোতে আন্তজেলা যান চলাচল সীমিত বা বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

সোমবার (২৯ মার্চ) এমন নির্দেশনা দেওয়া হলেও ঠিক এখনই এমন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হচ্ছে না গণপরিবহনে। পরিবহনের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন অথরিটির (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার জানিয়েছেন, বিআরটিএ’র ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব অনুমোদনের পর ৫০ শতাংশ আসনে যাত্রী বহন শুরু হবে। তার আগে নয়।

 

তিনি বলেন, ‘আমরা সরকারের ১৮ দফা নির্দেশনা পাওয়ার পর ভাড়া পুনর্নির্ধারণ সংক্রান্ত আজ একটি বৈঠক করেছি। বৈঠকে ২০২০ সালের মার্চে যেভাবে ভাড়া নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছিল, ঠিক সেভাবে পরিবহন পরিচালনার জন্য মন্ত্রণালয়ে একটি প্রস্তাব পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রস্তাবটি অনুমোদনের পর মালিকরা ৫০ শতাংশ আসন ফাঁকা রেখে যান চলাচলের যে নির্দেশনা—সেটি মেনে চলবে। কারণ, আসন ফাঁকা রেখে বর্তমান ভাড়ায় পরিবহন পরিচালনা করলে তো মালিকদের লোকসান হবে।’

 

তিনি আরও বলেন, ‘ভাড়া বাড়ানোর বিষয়ে সরকারের অনুমোদন লাগবে। যেহেতু আগামীকাল (মঙ্গলবার) শবে বরাতের সরকারি ছুটি। তাই পরের দিন এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত আসতে পারে। মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত পাওয়ার পর আমরা গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রীর পরিবহন নিশ্চিত করবো। তার আগে বর্তমান নিয়মেই পরিবহন চলবে।’

জানতে চাইলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব ও ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, ‘ভাড়া নির্ধারণের আগে যদি অর্ধেক যাত্রী পরিবহন করা হয়, তাহলে মালিকরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। মালিকরা অর্ধেক ভাড়ায় যাত্রী পারাপার করতে চাইবেন না।’

তিনি আরও বলেন, ‘‘বিষয়টি নিয়ে আমরা বিআরটিএ’র সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছেন, ভাড়া ও যাত্রীর সংখ্যা নির্ধারণের বিষয়ে সরকারের অনুমোদন লাগবে। গত মার্চে ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব অনুমোদনের পর থেকে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের বিষয়টি কার্যকর করা হয়। আমরা আশা করছি, প্রস্তাবটি অনুমোদন না হওয়া পর্যন্ত ‘যত আসন তত যাত্রী’ এই নিয়ম বহাল থাকবে।’’

তবে তিনি হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, ‘সরকারের ভাড়া পুনর্নির্ধারণের বিষয়টি এখনও কার্যকর না হতেই বিভিন্ন স্থানে পুলিশ পরিবহনের বিরুদ্ধে মামলা দিচ্ছে। বিষয়টি আমরা বিআরটিএ-কে জানিয়েছি। তারা ব্যবস্থা নেবেন বলে আমাদের আশ্বস্ত করেছেন।’

এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় গণপরিবহনে ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর সিদ্ধান্তের কথা জানায় বিআরটিএ। তার আগে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ১৮ দফা নির্দেশনা জারি করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। সেখানে যান চলাচলের বিষয়ে ৫০ শতাংশ আসনে যাত্রী পরিবহনের নির্দেশনা দেওয়া হয়।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top