ঢাকা শনিবার, ৮ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯

বঙ্গবন্ধুর ওপর প্রকাশিত ডাকটিকেটের প্রদর্শনী

নিজস্ব প্রতিবেদক: | প্রকাশিত: ২৭ মার্চ ২০২১ ২২:৩৪; আপডেট: ৮ অক্টোবর ২০২২ ০০:৩৯

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ  জয়ন্তী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর ওপর এ যাবৎকালে প্রকাশিত স্মারক ডাকটিকেট প্রদর্শন ঢাকা জিপিওতে শুরু হয়েছে। ডাক ও অধিদফতর ও বাংলাদেশ ফিলাটেলিক সংগঠন এই প্রদর্শনীর আয়োজন করে। বছরব্যাপী পর্যায়ক্রমে দেশের সব গুরুত্বপূর্ণ ডাকঘরে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হবে বলে ডাক ওটেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জানান।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী শনিবার (২৭ মার্চ) ভার্চুয়ালি উপস্থিত থেকে ঢাকা জিপিওতে বঙ্গবন্ধুর ওপর প্রকাশিত স্মারক ডাকটিকেট প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। এসময় ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. আফজাল হোসেন, ডাক অধিদফতরের মহাপরিচালক মো: সিরাজ উদ্দিন এবং বাংলাদেশ ফিলাটেলিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ডাকভবন অডিটরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর ওপর প্রকাশিত স্মারক ডাকটিকেটকে অতি গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক সম্পদ উল্লেখ করে বলেন, ডাকটিকেট বাণিজ্যিক উপাদান হিসেবে দেখি না। ডাকটিকেট ইতিহাসের স্বাক্ষী। এটি ব্যক্তি দেশ,জাতি,  যুগ ও সভ্যতার প্রকাশ ঘটায়।আমাদের ডাকটিকেট পৃথিবীতে ভাষাভিত্তিক বাংলাদেশ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ইতিহাস, আমাদের মুক্তিযুদ্ধ, শিক্ষা, সংস্কৃতি, সমাজ সাহিত্য বিশ্বে ৩৫ কোটি বাংলা ভাষাভাষী মানুষের জীবন জীবীকার ইতিহাস ঐতিহ্য প্রকাশ করছে।
 

মোস্তাফা জব্বার বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন বর্ষ উপলক্ষে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে অজানা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাবলী ডাকটিকেটের মাধ্যমে প্রকাশের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

তিনি প্রকাশিত স্মারক ডাকটিকেট ঢাকা কেন্দ্রিক না করে দেশের সকল অঞ্চলে তা সংগ্রাহকদের হাতের নাগালে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণের জন্য  তিনি সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমাদের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাসেও ডাক বিভাগের গৌরবোজজ্জ্বল অর্জন রয়েছে। মুজিবনগর সরকার প্রকাশিত স্মারক ডাকটিকিট স্বাধীন বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় অস্তিত্ব প্রকাশে অবিস্মরণীয় ভূমিকা রেখেছে। একাত্তরের ২৯ জুলাই মুজিবনগর সরকার এবং যুক্তরাজ্যের হাউজ অব কমন্স থেকে প্রকাশিত ভারতীয় নাগরিক বিমান মল্লিকের ডিজাইন করা ৮টি স্মারক ডাকটিকিট বিশ্বে আমাদের জাতিস্বত্ত্বা, রাষ্ট্রস্বত্ত্বা ও মুক্তিযুদ্ধের প্রতিফলন ঘটিয়েছে। এর মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রের অস্তিত্ব তুলে ধরা হয়েছে যা সারা দুনিয়ায় আলোড়ন সৃষ্টি করে।

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top