ঢাকা বৃহঃস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

শোকাবহ আগষ্ট

কদমতলী থানা কৃষকলীগের উদ্যোগে মিলাদ, দোয়া এবং খাদ্য বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: | প্রকাশিত: ২৯ আগস্ট ২০২১ ১৮:৩৯; আপডেট: ৩০ আগস্ট ২০২১ ২১:২১

শোকাবহ আগষ্ট। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ কৃষক লীগ আয়োজিত মাসব্যাপি নানা কর্মসূচির মধ্যে আজ ২৯ আগষ্ট, ২০২১ কদমতলী থানা কৃষকলীগ, ঢাকা মহানগর দক্ষিনের উদ্যোগে মিলাদ, দোয়া ও খাদ্য বিতরণ কর্মসূচি  আয়োজন করা হয়।

কদমতলী থানার উদ্যোগে শ্যামপুর বালুর মাঠ সংলগ্ন জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার পরিবারের সকলের প্রতি দোয়া, মিলাদ মাহফিল এবং অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ কর্মসূচি পালন করে। 

আগষ্টের প্রথম দিন থেকেই শুরু রক্তদান কর্মসূচি। এবারের আগষ্ট এর প্রথম দিনই করোনা এবং ডেঙ্গুর প্রখোপ বেড়ে যাওয়ায় তারা রক্তদান এবং প্লাজমা সংগ্রহ কর্মসূচি আয়োজন করেন বঙ্গবন্ধুর বাসভবন প্রাঙ্গনে।

বাংলাদেশ কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমির চন্দ এবং সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি, এমপি এর নির্দেশনায় ঢাকা মহানগর দক্ষিনের সংগ্রামী সভাপতি আবদুস সালাম বাবুর সরাসরি অংশ গ্রহনে ঢাকা মহানগর দক্ষিনের প্রতিটি থানা, ওয়ার্ড এবং ইউনিটগুলোতে মাসব্যাপি অসহায় দুস্থদের মাঝে রান্না করা খাবার, খাদ্য সামগ্রী বিরতণ এবং ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় জরুরী ঔষুধ সামগ্রী বিরতণ কর্মসূচি আয়োজন করে আসছেন।

 

তারই ধারাবাহিকতার মধ্যে আজ কদমতলী থানার কৃষকলীগের সভাপতি দুলালের সভাপতিত্বে এবং কদমতলী থানা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেনের সঞ্চালনায় শ্যামপুর বালুর মাঠ সংলগ্ন আয়োজন করা হয় মিলাদ, দোয়া এবং খাদ্য বিতরণ কর্মসূচি। কদমতলী কৃষকলীগ আজ প্রায় এক হাজার মানুষের মাঝে রান্না করা খাদ্য বিতরণ করে থাকে।

 

 

উক্ত কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মূল্যবান দিক নির্দেশনামূল বক্তব্য রাখেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিন কৃষক লীগের  সভাপতি আব্দুস সালাম বাবু।

তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এই দেশই জন্ম হতোনা। বঙ্গবন্ধুর সৃষ্টি করা বাংলাদেশকে সুন্দর ভাবে পরিচালনা করছেন তারই যোগ্য কন্যা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা। যিনি কারো কাছে মাথানত করার নয়। 

বঙ্গবন্ধুর কন্যা সারা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়ে কিভাবে নিজেদের যোগ্যতায় করতে হয় পদ্মা সেতু। কারও সাহায্য ছাড়াও পদ্মার মতো এতোবড় সেতু করা যায়। তা আজ স্বপ্ন নয় বাস্তবে রুপান্তর করেছেন তিনি। বাংলাদেশের মানুষকে এই আগষ্ট মাসেই তিনি মেট্টো রেল এর মতো আরেকটি বড় অর্জন তা আজ চোখে পড়ার মতো।

তিনি আরো বলেন, আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজকে মানুষের সামনে তুলে ধরার জন্য। প্রতিটি সংগঠন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আরও সুশৃঙ্খল ভাবে কাজ করে যেতে হবে। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পর্কে মানুষের মাঝে পৌছে দিতে হবে।

এছাড়াও তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু এবং তার পরিবারকে ন্যাক্কারজনক হত্যা মূল চক্রান্তকারী জিয়াউর রহমান তার কর্মের ফল হিসেবে মহান আল্লাহ তায়ালা তাকে আরো ভয়ঙ্কর মৃত্যু দিয়েছেন। যেখানে তার লাশবিহীন বাক্স কবর প্রদান করা হয়েছে চন্দ্রিমা উদ্যানে। জিয়াউর রহমান চেয়েছিল, বাংলাদেশের জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার পরিবারকে হত্যার মধ্যে দিয়ে এই দেশকে  নিঃশ্বেষ করে দেওয়ার। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর জৈষ্ঠ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষতা এবং বাংলাদেশের প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসা এবং জাতির জনকের আদর্শ বুকে লালন করে তিনি বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে মাথা উচিয়ে কথা বলার সুযোগ করে দিয়েছেন।

এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, হাজী আব্দুর রব খাঁন (সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ কৃষকলীগ, ঢাকা মহানগর দক্ষিন), আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম তাজু (সহ-সভাপতি, কদমতলী থানা আওয়ামী লীগ), আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম সিরাজ (সহ-সভাপতি, কদমতলী থানা আওয়ামী লীগ), আকাশ কুমার ভৌমিক (কাউন্সিলর ৫৯ওয়ার্ড, ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশন), শফিকুল ইসলাম কোতয়াল (সহঃ সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ) আনোয়ার ইসলাম আনু (আহ্ববায়ক, কদমতলী থানা ছাত্রলীগ), বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলআমিন রেজা, সামাজিক সংগঠন বিজয়৭১ এর সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহম্মেদ শাকিল, পাঠগার বিষয়ক সম্পাদক সৌরভ হোসেন ফাহিম, ফেমাস স্কুলের কর্ণধার ফায়সাল বাবু।

 

উক্ত আয়োজনে অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ, কদমতলী থানা যুবলীগ, মৎসজীবি লীগ, তাতী লীগ,  বিভিন্ন ব্যবসায়ীবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ প্রমুখ।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top