ঢাকা বৃহঃস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

ভিকারুননিসায় ভর্তির সুযোগ পাচ্ছে সেই ১৯ জমজ শিশু

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ২২ আগস্ট ২০২১ ২১:৩৬; আপডেট: ৯ ডিসেম্বর ২০২১ ০৪:১৪

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে ১৯ জমজ শিশুকে চলতি ২০২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি করতে কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের নির্দেশের পর জমজ বোনদের সঙ্গে ১৯ শিশুকে ভর্তির সুযোগ দিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ।

আগামী ২৫ আগস্টের মধ্যে তাদেরকে নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্নের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাতি ও দিবা শাখার (বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যম) ২০২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে যমজ বোন হিসেবে আবেদনকারীদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, বেসরকারি স্কুল ও কলেজে সংশোধিত শিক্ষার্থী ভর্তি নীতিমালার ১৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ঢাকা বোর্ডের নির্দেশনা এবং মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী ১৯ জন যমজ বোনকে (যারা লটারিতে নির্বাচিত হয়নি) প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির সুযোগ প্রদান করা হয়েছে।

নির্বাচিত ছাত্রীদের ভর্তির জন্য অনলাইনে ভর্তি ফরম পূরণ করে ও ভর্তি ফি পরিশোধ করে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

নোটিশে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের আগামী ২৩ আগস্ট সকাল ১০টা থেকে ২৪ আগস্ট রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে অনলাইনে ভর্তি ফি প্রদান, ভর্তি ফরম পূরণ ও প্রিন্ট কপি সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে।

২০২১ শিক্ষাবর্ষে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার জন্য যারা আবেদন করেছিলেন তাদের মধ্যে ১৯ জমজ শিশু ছিল। পরবর্তীতে এ জমজ শিশুদের মধ্যে থেকে একজন করে লটারিতে ভর্তির সুযোগ পায় আর একজন করে ভর্তি বঞ্চিত হয়।

এরপর ভিকারুননিসা স্কুল কর্তৃপক্ষ এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে আবেদন করা হয়, যাতে ১৯ জমজ শিশুর দুজনকেই ভর্তির সুযোগ দেয়া হয়। কিন্তু এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় জমজ শিশুদের অভিভাবকদের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে রিট করা হয়।

রিটের শুনানি নিয়ে গত ১০ আগস্ট হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ ১৯ জমজ শিশুকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে ২০২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির নির্দেশ দেন।

হাইকোর্টের শুনানিতে রিটের পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান হাইকোর্টকে বলেন, ‘জমজ এ শিশুদের সুস্থ মানসিক বৃদ্ধি ও বিকাশের জন্য একসঙ্গে থাকা খুবই জরুরি। কারণ তাদের চাওয়া-পাওয়া প্রায় একইরকম। আমার নিজেরও জমজ বাচ্চা আছে।

আমি দেখেছি, তাদেরকে যদি আলাদা কিছু দেওয়া হয় বা আলাদা পরিবেশে রাখা হয়, তারা এক ধরনের মানসিক সমস্যায় ভোগে। তাদের মধ্যে খারাপ প্রভাব পড়ে।’

এসব যুক্তি শুনে হাইকোর্ট ২০২১ শিক্ষাবর্ষে ১৯ জমজ শিশুকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি নিতে কর্তৃপক্ষের প্রতি নির্দেশ দেন।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top