ঢাকা শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮

স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ বাড়ছে ৩২ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: | প্রকাশিত: ১০ মে ২০২১ ০০:৪৬; আপডেট: ১৯ জুন ২০২১ ০৯:১২

করোনা সংকট মোকাবিলায় উন্নয়ন বাজেট বা বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে স্বাস্থ্য খাত। এ খাতে ২০২১-২২ অর্থবছরে মোট বরাদ্দ বাড়ছে ৩২ দশমিক ৭৬ শতাংশ, যা টাকার অংকে ১৭ হাজার ৩০২ কোটি টাকা।

 
অন্যদিকে ২০২০-২১ অর্থ বছরের এডিপিতে মোট বরাদ্দ ছিল ১৩ হাজার ৩২ কোটি টাকা। ১৫টি খাতে মোট এডিপি ব্যয় হবে। খাতওয়ারী স্বাস্থ্য খাত বরাদ্দের দিক থেকে পাঁচ নম্বরে উঠে এসেছে।  

নতুন এডিপির আকার হবে ২ লাখ ২৫ হাজার ৩২৪ কোটি ১৪ লাখ টাকা। নতুন এডিপিতে দেশীয় উৎস থেকে বেশি সম্পদের জোগান দেওয়া হচ্ছে। ২ লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকার মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে জোগান দেওয়া হবে ১ লাখ ৩৭ হাজার ৩০০ কোটি টাকা, যা মোট বরাদ্দের ৬১ শতাংশ। অবশিষ্ট ৩৯ শতাংশ বা ৮৭ হাজার ৭০০ কোটি টাকা আসবে বিদেশি উৎস থেকে।

২০২১-২২ অর্থ বছরের এডিপির আকার নিয়ে রোববার (০৯ মে) শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে এক বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এডিপির নানা বিষয়ে আলোচনা হয়।  

নতুন এডিপিতে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে পরিবহন ও যোগাযোগ খাত। এ খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৬১ হাজার ৬৩১ কোটি টাকা, যা মোট এডিপির ২৭ দশমিক ৪৭ শতাংশ। এরপরেই বিদ্যুৎ খাতে গুরুত্ব দিয়ে ৪৫ হাজার ৮৬৭ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ২৩ হাজার ৪২১ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে গৃহায়ণ খাতে।  

নতুন এডিপিতে বরাদ্দ দেওয়ার ক্ষেত্রে চতুর্থ স্থানে আছে শিক্ষা খাত। এখাতের বরাদ্দ ২৩ হাজার ৩২৩ কোটি টাকা, যা মোট এডিপির ১০ দশমিক ৪০ শতাংশ।  

এছাড়া স্থানীয় সরকার বিভাগে ১৪ হাজার ২৭৪, পরিবেশ ও পানি উন্নয়নে ৮ হাজার ৪৭০, কৃষিতে ৭ হাজার ৬৪৬, শিল্পখাতে ৪ হাজার ৬৪৩, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতে ৩ হাজার ২০৪ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে।  

পাবলিক অর্ডার অ্যান্ড সেফটি খাতে ৩ হাজার ২০৪, সাধারণ সেবা খাতে ২ হাজার ৯২৩, সাংস্কৃতিক খাতে ২ হাজার ১৯০, সামাজিক নিরাপত্তা খাতে ১ হাজার ৬৪৮ কোটি এবং ডিফেন্স খাতে ৮৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে।  

পরিকল্পনা কমিশনের  কার্যক্রম বিভাগের (কৃষি, শিল্প ও সমন্বয় উইং) যুগ্মপ্রধান মো. ছায়েদুজ্জামান বাংলানিউজকে বলেন, নতুন এডিপির আকার ২ লাখ ২৫ হাজার ৩২৪ কোটি টাকা হতে পারে। করোনা সংকটেও বড় এডিপি নেওয়া হচ্ছে, এটা অন্যতম চ্যালেঞ্জ। করোনা সংকটে স্বাস্থ্য খাত বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে। টিকা কেনাসহ হাসাপাতালগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধি করতেই মূলত নতুন এডিপিতে বরাদ্দ বাড়ছে স্বাস্থ্য খাতে।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top