ঢাকা, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৩, স্থানীয় সময়: ১৩:২২:২১

‘দিস ইজ বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতার ফল ঘোষণা

প্রযুক্তি, শিরোনাম, সর্বশেষ | ২৭ পৌষ ১৪২৩ | Tuesday, January 10, 2017

প্রযুক্তি ড্স্কে : ‘দিস ইজ বাংলাদেশ’ ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের নাম আজ মঙ্গলবার ঘোষণা করেছে স্যামসাং বাংলাদেশ। বিচারক প্যানেলের সিদ্ধান্ত এবং ফেসবুকে লাইক সংখ্যার ওপর ভিত্তি করে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বগুড়ার মো. আবদুল মমিনকে প্রথম, ঢাকার ইমতিয়াজ উদ্দীনকে দ্বিতীয় এবং ঢাকার তন্ময় চৌধুরীকে তৃতীয় পুরস্কার বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

---

একইসঙ্গে প্রতিযোগিতার পুরস্কার হিসেবে আবদুল মমিনকে ৩২ ইঞ্চি স্যামসাং স্মার্ট টিভি, ইমতিয়াজ উদ্দীনকে ৩২ ইঞ্চি স্যামসাং মিউজিক টিভি এবং তন্ময় চৌধুরীকে একটি ৩২ ইঞ্চি স্যামসাং বেসিক এলইডি টিভি দেয়ার ঘোষণা করা হয়।

পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণাকালে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স-এর হেড অব কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স ফিরোজ মোহাম্মদ বলেন, ‘স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স সব সময় বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানায় এবং এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমরা প্রতিভাবান ফটোগ্রাফারদের মাধ্যমে বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ কিছু ছবি মানুষের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রতিযোগিরা অসাধারণ কিছু ছবি জমা দেন এবং আমরা এই প্রতিযোগিতার সেরা তিন ফটোগ্রাফারকে বিজয়ী হিসেবে বেছে নেই।’

দিস ইজ বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার প্রথম পুরস্কার বিজয়ী মো. আব্দুল মমিন বলেন, ‘কিছুদিন আগে আমি আমার ফেসবুক টাইমলাইনে স্যামসাং বাংলাদেশের ‘দিস ইজ বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতা দেখি এবং এতে অংশগ্রহণ করি। আমার তোলা ছবি প্রথম স্থান অধিকার করার মাধ্যমে আমি প্রথম পুরস্কার অর্জন করায় খুবই আনন্দিত।

এই প্রতিযোগিতার আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশের সৌন্দর্যকে তুলে ধরতে সহযোগিতা করার জন্য আমি স্যামসাং বাংলাদেশের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।’

প্রসঙ্গত, প্রতিযোগিতাটি ২০১৬ সালের ১ ডিসেম্বরে স্যামসাং বাংলাদেশের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ ‘স্যামসাং বাংলাদেশ’-এ শুরু হয়েছিলো। এতে প্রতিযোগীদের বাংলাদেশের বিভিন্ন ছবি তুলে স্যামসাং বাংলাদেশের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে হ্যাশ ট্যাগ দিস ইজ বাংলাদেশ (#ThisIsBangladesh) দিয়ে ছবিগুলো আপলোড করতে বলা হয়।

পাঁচ’শ-এরও বেশি ছবির মধ্যে স্যামসাং বাংলাদেশ মাত্র নয়টি ছবিকে সংক্ষিপ্ত তালিকা করে। এই নয়টি ছবিকে জনমতের জন্য ফেসবুকে আপলোড এবং বিচারের জন্য তিন জন ফ্রিল্যান্সার ফটোগ্রাফারের সমন্বয়ে গঠিত বিচারক প্যানেলের কাছে পাঠানো হয়।

//সংবাদ প্রতিদিন//স/শ